গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

তাজা খবর রিপোর্ট:: গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র, ঘাঘট ও করতোয়া নদীর পানি অব্যাহত থাকায় জেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির অবনতি অব্যাহত রয়েছে।

গত একমাসে পর পর দু’দফায় বন্যায় সুন্দরগঞ্জ, ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সদর উপজেলায় ব্রহ্মপুত্র-যমুনা ও ঘাঘট নদী তীরবর্তী নিচু এলাকাসহ বিস্তীর্ণ চরাঞ্চলের দেড় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী অবস্থায় থাকায় তারা চরম দুর্দশার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। ইতোমধ্যে যারা নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধ ও বিভিন্ন এলাকায় গরু-ছাগল নিয়ে আশ্রয় নিয়েছে তারা ঘরে ফিরতে পারছে না। ফলে কর্মহীন হয়ে পড়ায় তারা চরম বিপাকে পড়েছে।

সাঘাটা, ফুলছড়ি, সুন্দরগঞ্জ, গোবিন্দগঞ্জ, পলাশবাড়ি ও সদর উপজেলার ১৯টি পয়েন্টে ব্যাপক নদী ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া গাইবান্ধা শহর রক্ষা বাঁধসহ বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধের ৫২টি পয়েন্ট এখন ভাঙন কবলিত হওয়ায় চরম হুমকির মুখে রয়েছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে বাঁধ ভেঙে জেলায় বন্যায় চরম বিপর্যয় দেখা দিতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, রোববার ব্রহ্মপুত্র নদীর পানি বিপদসীমার ৯৮ সে.মি. ও ঘাঘট নদীর পানি বিপদসীমার ৭৫ সে.মি. এবং করতোয়া নদীর পানি এসময় ৬ সে.মি. কমে এখন বিপদসীমার ৩২ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। তিস্তা নদীর পানিও এসময় ১ সে.মি. কমেছে।

পিএনএস

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন