চায়ের দোকানে বসে এক নেতা আরেক নেতার বিরুদ্ধে কথা বলবেন না : কাদের

তাজা খবর ডেস্ক :: সংগঠনের জন্য সাংগঠনিক ঐক্যের বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, ছোট ছোট বিষয়ে মতের অমিল থাকলে সেটা নিজেরা বসে মিটিয়ে ফেলুন। চায়ের দোকানে বসে দলের এক নেতা আরেক নেতার বিরুদ্ধে কথা বলবেন না। এইটা দলের মর্যাদাকেই ক্ষুণ্ন করে। তাই ঘরের বিবাদ ঘরে বসেই মিটিয়ে ফেলুন।

শনিবার (১৪ নভেম্বর) সকালে এক অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবন থেকে রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচন ও আন্দোলনে জনগণের কাছ থেকে প্রত্যাখ্যাত হয়ে বিএনপি আবারও আগুন সন্ত্রাসের মাধ্যমে মানুষ পুড়িয়ে প্রতিশোধ নিতে চাচ্ছে।

বিএনপির রাজনৈতিক সংস্কৃতি হত্যা ও সন্ত্রাস উল্লেখ করে তিনি বলেন, নিকট অতীতেও তারা পেট্রোল বোমা এবং আগুন সন্ত্রাসের মাধ্যমে মানুষ হত্যার মহোৎসব করেছিল। ২০১৩ সালে যাত্রী বেশে বাসে উঠে গান পাউডার দিয়ে যেভাবে আগুন দিয়েছে, এবারও তারা সেভাবেই আগুন দিয়েছে।

বাস পোড়ানোর ঘটনার ভিডিও ফুটেজ আছে, সবই পুরনো এবং চেনামুখ জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে একটি ফোনালাপের রহস্য উন্মোচনের চেষ্টা করছে পুলিশ।

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, কোনো পকেট কমিটি করা যাবে না, ত্যাগী ও দলের নিবেদিতদের কমিটিতে স্থান করে দিতে হবে।

বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রকৌশলী এনামুল হকের সভাপতিত্বে সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেরাজ উদ্দিন মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক গোলাম সরওয়ার আবুল এবং মহানগরের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

 

ডেস্ক/তাজাখবর/সাখাওয়াত হোসেন হানিফ

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন