রাজনীতি থেকে যাওয়ার সময় হয়ে গেছে : শামীম ওসমান

 

তাজা খবর ডেস্ক ::  নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন, আমার এখন মোটামুটি যাওয়ার সময় হয়ে গেছে। অনেকে ভাবে রাজনীতিতে চিরস্থায়ী হওয়া, আমি রাজনীতিতে চিরস্থায়ী হওয়ার জন্য আসিনি। আমার ফর্ম থাকা অব্স্থায় বিদায় নেওয়ার জন্য নিজেকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করছি।

শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জে মাস্টারস ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য শামীম ওসমান এ কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, নারায়ণগঞ্জ যা ডিজার্ভ করত তা কিন্তু পায়নি। এই না পাওয়ার পেছনে যে মূল কারণ সেটা হলো যদি পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা না হতো। আমার কাছে মনে হয় গোপালগঞ্জের চেয়েও বঙ্গবন্ধুর কাছে নারায়ণগঞ্জ বেশি প্রিয় ছিল।

নিজের রাজনৈতিক জীবন থেকে অবসর নেওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে শামীম ওসমান বলেন, আমি এটাও বিশ্বাস করি না যে, আমি রাজনীতি করব দেখে আমার সন্তান, স্ত্রীও ভবিষ্যতে আমার জায়গা নিবে। আমি এই রাজনীতিতে বিশ্বাস করি না। আমি বিশ্বাস করি যার ত্যাগ আছে, তিতীক্ষা আছে, দলের জন্য যে আদর্শিক তাঁকে উপযুক্ত জায়গায় বসানো। কিন্তু এখন যারা রাজনীতি করেন, তারা রাজনীতির জন্য রাজনীতি করেন না। আমার মনে হয় অন্যকিছুর জন্য রাজনীতি করেন।

দেশকে অকার্যকর করতে এখন আন্তর্জাতিক ও স্থানীয়ভাবে ষড়যন্ত্র হচ্ছে উল্লেখ করে শামীম ওসমান আরো বলেন, একমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষেই এই পরিস্থিতি মোকাবিলা করা সম্ভব। আপনারা সবাই প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া করবেন।

আওয়ামী লীগের এই সংসদ সদস্য বলেন, নারায়ণগঞ্জের যা প্রাপ্য তা পাবে ইনশা আল্লাহ, এটা আমার বিশ্বাস। কিন্তু একটা মানুষের জন্য আপনাদের কাছে দোয়া চাই। আমি আপনাদের সাংবাদিকদের কাছে একটা কথা বলতে চাই। সরকার পরিবর্তনের জন্য না, বাংলাদেশ রাষ্ট্রকে অকার্যকর করার জন্য, বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় খেলা শুরু হয়েছে। আন্তর্জাতিক এবং লোকালি এই খেলা শুরু হয়েছে। আপনারা শুধু দোয়া করবেন এই জায়গা থেকে শুধু মোকাবিলা করতে পারে একটি মানুষ। আমি আওয়ামী লীগ করি দেখে বলছি না। আমি আওয়ামী লীগের সবকিছু পারফেক্ট মনে করি না। আমি একটা মানুষের ওপর বিশ্বাস রাখি, আল্লাহ-রাসুলের ওপর বিশ্বাস রেখে বলতে চাই, আমাদের যৌবন কিন্তু অভিশপ্ত হয়েছিল, বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর পর। আপনাদেরটা যেন না হয়।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ দেশের সবচেয়ে সুন্দর জায়গা হতে যাচ্ছে। ডিএনডি প্রকল্পের কাজ করছে সেনাবাহিনী। ইতোমধ্যে ৯৯টি খাল উদ্ধার হয়েছে। পুরো এলাকা হাতিরঝিলের চেয়েও সুন্দর হবে। দেশের সবচেয়ে সুন্দর রাস্তা হবে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড। ইতোমধ্যে টেন্ডার হয়ে গেছে। নারায়ণগঞ্জ তার প্রাপ্যটুকু পাবে ইনশাআল্লাহ।

শামীম ওসমান বলেন, লিংক রোড হবে ছয় লেনের। সেখানে রাস্তা হবে, ফুটপাত থাকবে, গাছ থাকবে। শিবু মার্কেট, ভূইঘর, জালকুড়ি এলাকায় আন্ডারপাস, ওভারপাস থাকবে। তল দিয়ে, ওপর দিয়ে গাড়ি যাবে। আমরা এটা করছি ইনশাআল্লাহ। টেন্ডার হয়ে গেছে। পঞ্চবটি থেকে মুক্তারপুর পর্যন্ত আমরা ফ্লাইওভার করছি

এর আগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মাস্টার ক্রিকেটার্স অব নারায়ণগঞ্জ আয়োজিত মাস্টারস ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। নগরীর ইসদাইর এলাকায় সামসুজ্জোহা ক্রিকেট কমপ্লেক্স মাঠে সকাল ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত এই খেলা অনুষ্ঠিত হয়। মোট পাঁচটি দলের অংশগ্রহণে দুইটি বিভাগে কাপ পর্বে ও প্লেট পর্বে দুইটি ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কাপ পর্বে ২০ ওভারের খেলায় নারায়ণগঞ্জ ওরিয়র্স দলকে ৩২ রানে হারিয়ে জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা ডাইনামাইটস চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। অপরদিকে প্লেট পর্বে ১৫ ওভারের খেলায় শীতলক্ষ্যা ভাইকিংসকে চার উইকেটে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় নারায়ণগঞ্জ সুপার হিরোস।

বিকেল ৫টার দিকে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহম্মেদ টিটুর সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন, বিজিবির ৬২ ব্যাটালিয়ান নারায়ণগঞ্জ কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল শরীফ মো. মেহেদী হাসান আল আমিন, র‌্যাব-১১ ব্যাটালিয়ানের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম ও জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাহিদ।

 

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন