‘ধর্ষকদের রাস্তায় এনে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেওয়া উচিত’

তাজা খবর, বিনোদন ডেস্ক :: এই মুহূর্তে ভোপালে ‘ধক্কড়’ ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন কঙ্গনা রানাউত। এরমধ্যেই মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানের স‌ঙ্গে দে‌খা করতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে নানান বিষয় নিয়ে মুখ খুলেন অভিনেত্রী।

সাংবাদিক সম্মেলনে অংশ নিয়ে সেখানে কঙ্গনা বলেন, মহিলাদের উপর অত্যাচার বন্ধ করতে হলে সরকারকে আরও কড়া হতে হবে। ধর্ষকদের উপযুক্ত সাজা হল ফাঁসি।

ধর্ষকদের উপযুক্ত সাজার কথা বলতে গিয়ে সৌদি আরবের উদাহরণ টেনে কঙ্গনা জানান, সে দেশের মতো অপরাধীদের চৌরাস্তায় এনে ফাঁসি দিয়ে দেওয়া উচিত। অভিনেত্রী বলেন, ‘অনেক মহিলা নিজেদের কথা বলতে দ্বিধাবোধ করেন। তাই অনেক যৌন হেনস্থার ঘটনা আমরা জানতেও পারি না। তাদের চুপ থাকার একটা বড় কারণ, আমাদের দেশের আইন। ধর্ষকরা জানে যে তারা ঠিক আইনের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে যেতে পারবে। বছরের পর বছর নির্যাতিতাদের কেবল প্রশ্নের উত্তর দিয়ে যেতে হয়। আইন ও পুলিশের হাতেও হেনস্থা হতে হয় তাকে।’

কঙ্গনা রানাউত স্পষ্ট ভাবে পুলিশ ও আইনি প্রক্রিয়ার বিরুদ্ধেও আওয়াজ তুললেন। তিনি ব্যাখ্যা করলেন, যে ভাবে হেনস্থার উদাহরণ সম্পর্কে তারা নির্যাতিতার কাছ থেকে জানতে চায়, সেটা খুব অপমানজনক। ‘কোথায় হাত দিয়েছিল? বুকে, নাকি হাতে, নাকি ঊরুতে? এ ভাবে বছরের পর বছর তাদের প্রমাণ করতে হয় যে আদপে তাদের হেনস্থা করা হয়েছে।’

কঙ্গনার পরামর্শ, পাঁচ থেকে ছ’টি গণধর্ষণের ঘটনায় অপরাধীদের ঠিক এ ভাবেই শাস্তি দেওয়া উচিত। তবেই ধর্ষকরা ভয় পাবে।

ডেস্ক/তাজাখবর/এনআর

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন