রাজশাহীতে বিএনপির ৪ নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

তাজা খবর রিপোর্ট: রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপি চেয়ারপারর্সনের উপদেষ্টা ও সাবেক রাজশাহী সিটি মেয়র মিজানুর রহমান মিনু ও দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুসহ চার নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

বুধবার (৩১ মার্চ) দুপুরে রাজশাহী মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাইফুল ইসলাম তাদের বিরুদ্ধে এ পরোয়ানা জারি করেন।

মামলার অপর দুই আসামী হলেন, রাজশাহী মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সিটি মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল এবং মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এ্যাডভোকেট আসলাম সরকার বলেন, রাজপাড়া থানা ওসি ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম বুধবার আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। আদালত প্রতিবেদনটি আমলে নিয়ে শুনানি শেষে বিএনপির চার নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করেন। একইসঙ্গে আগামী ২৬ এপ্রিল মামলার পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়।

অ্যাডভোকেট আসলাম সরকার জানান, গত ২ মার্চ রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পচাত্তরের ১৫ আগস্ট স্মরণ করিয়ে দিয়ে প্রাণনাশের হুমকি ও বর্তমান সরকার উৎখাতে রাষ্ট্র বিরোধী বক্তব্য দেওয়া হয়। এ ঘটনায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার অনুমতির চেয়ে গত ৯ মার্চ রাজশাহী জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন মহানগর আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাডভোকেট মুসাব্বিরুল ইসলাম।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন পাওয়ার পর গত ১৬ মার্চ রাজশাহী মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা দায়ের করে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে রাজপাড়া থানার ওসিকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

এর আগে গত ২ মার্চ রাজশাহীর মাদরাসা ময়দান সংলগ্ন নাইস কনভেনশন সেন্টারে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, সাবেক মেয়র ও নগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলসহ অন্যান্য বিএনপি নেতারা অশোভন ও উসকানিমূলক বক্তব্য দেন বলে অভিযোগ ওঠে। এর প্রতিবাদে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠন নানারকম প্রতিবাদী কর্মসূচি পালন করে।

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন