স্বাগতম মাহে রমজান, আহ্বান ঘরে থাকার

তাজা খবর, ইসলাম :: রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের সওগাত নিয়ে বছর ঘুরে আবার এলো মাহে রমজান। দেশের আকাশে মঙ্গলবার হিজরি ১৪৪২ সালের রমজান মাসের চাঁদ দেখার পর বুধবার (১৪ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে মাসব্যাপী সিয়াম সাধনা।

করোনা মহামারির এ সংকটময় মুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তারাবির নামাজে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও ঘরে থেকে এবাদত বন্দেগিতে মশগুল থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলালের সভাপতিত্বে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভা শেষে ফরিদুল হক জানান, বাংলাদেশের আকাশে রমজান মাসের চাঁদ দেখা গেছে। সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে ৯ মে দিবাগত রাতে ‘পবিত্র লাইলাতুল কদর’ পালিত হবে।

রমজান মাসের চাঁদ দেখার পর থেকেই ঘরে ঘরে রোজার প্রস্তুতি শুরু হয়ে যায়। করোনা মহামারির কারণে দেশের মসজিদগুলোতে প্রতি ওয়াক্ত ও তারাবিহ নামাজের জামাতে সর্বোচ্চ ২০ জন মুসল্লি অংশ নিতে পারবেন বলে সোমবার আদেশ জারি করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। সেই নির্দেশ অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে মঙ্গলবার রাতে রাজধানীসহ দেশের মসজিদগুলোতে এশার নামাজের পরে প্রথম তারাবির জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। শেষ রাতে সেহরি খেয়ে আজ প্রথমদিনের রোজা রেখেছেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা।

এ মাসে প্রতিদিন সুবহে সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত দিবাভাগে পানাহারবঞ্চিত থেকে সংযমের মাধ্যমে আত্মশুদ্ধি অর্জন করে মহান আল্লাহতায়ালার অনুগ্রহ কামনা করবেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা।

রাত কাটাবেন এবাদত-বন্দেগিতে। বিশ্বব্যাপী চলমান মহামারি থেকে রক্ষা পেতেও মহান আল্লাহর কাছে অনুগ্রহ প্রার্থনা করবেন তারা। রমজান শেষেই দেখা মিলবে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতরের।

পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বাণীতে তারা দেশবাসীসহ মুসলিম উম্মাহকে শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানিয়েছেন। মাসটির পবিত্রতা বজায় রেখে ব্যক্তি ও সমাজজীবনে এ মাসের তাৎপর্যের প্রতিফলন ঘটানোর আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে বলেন, ‘আসুন, পবিত্র মাহে রমজানের শিক্ষায় উদ্বুদ্ধ হয়ে যাবতীয় ভোগবিলাস, হিংসা-বিদ্বেষ, উচ্ছলতা ও সংঘাত পরিহার করি এবং জীবনের সর্বস্তরে পরিমিতিবোধ, ধৈর্য ও সংযম প্রদর্শনের মাধ্যমে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করি।’ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে তারাবিসহ অন্যান্য নামাজ আদায়ের আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘সিয়াম পালনের পাশাপাশি ঘরে অবস্থান করে বেশি করে কুরআন শরিফ তেলাওয়াত করি ও এবাদত-বন্দেগিতে মশগুল থাকি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মহান আল্লাহ আমাদের জাতীয় জীবনে পবিত্র মাহে রমজানের শিক্ষা কার্যকর করার তাওফিক দান করুন। মাহে রমজান আমাদের জীবনে বয়ে আনুক শান্তি। সবার জীবন মঙ্গলময় হোক। আমাদের দেশ ও জাতি তথা বিশ্ববাসী এই করোনা মহামারি থেকে মুক্তি পাক, মহান রাব্বুল আল-আমিনের কাছে এই দোয়া করি।’

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন