ব্যবসায়ীর গলায় রামদা ঠেকিয়ে পাঁচ লাখ টাকা ছিনতাই (!)

তাজা খবর করেসপন্ডেন্ট :: সুনামগঞ্জের কয়লা ব্যবসায়ীর গলায় রামদা ঠেকিয়ে পাঁচ লখ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় সুনামগঞ্জের তাহিরপুর থানায় দুর্বৃক্তদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার উপজেলার বড়দল দক্ষিণ ইউনিয়নের হলহলিয়া গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে কয়লা ব্যবসায়ী আনোয়ার আলী একই গ্রামের চান্দুর ছেলে নুর ইসলামসহ ১০ জনের নামোল্ল্যেখ করে অজ্ঞাতনামা আরো কয়েকজনের নামে থানায় এ অভিযোগ করেন।

তদন্তকারি অফিসার তাহিরপুর থানার এসআই নাজমুল ইসলাম অভিযোগ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আমি ঘটনাস্তলে সরজমিনে গেলে প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।

থানায় দেয়া অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার হলহলিয়া গ্রামের কয়লা ব্যবসায়ী আনোয়ার আলী বড়ছড়া স্থল শুল্ক ষ্টেশনের কয়লা আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান হতে ব্যবসায়ীক প্রয়োজনে পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে রবিবার রাতে বাড়ি ফিরছিলেন।

পথিমধ্যে উপজেলার হললিয়া গ্রামের চান্দু মিয়ার ছেলে নুর ইসলামের নেতৃত্বে ১০ থেকে ১২ জনের একটি দূবৃক্ত চক্র তাকে অনুসরণ করে একতা এলাকায় আটক করে বেধরকভাবে মারপিট করে আহত করে। ওই সময় দুর্বৃক্তরা ব্যবসায়ার গলায় রামদা ঠেকিয়ে ব্যবসায়ীর কাছে থাকা পাঁচ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে বীর দর্পেপ চলে যায়।

এলাকার লোকজন খবর পেয়ে আহত অবস্থায় ওই ব্যবসায়ীকে উদ্যার করে রাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করলে পরদিন সোমবার উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মঙ্গলবার রাতে প্রধান অভিযুক্ত উপজেলার হলহলিয়া গ্রামের নুর ইসলামের নিকট ব্যবসায়ীকে মারপিট করে পাঁচ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি এসবের কিছুই জানিনা।

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন