রক্তদহ বিলে সমলয় প্রযুক্তিতে কৃষির সম্ভাবনা

তাজা খবর, কামাল উদ্দিন টগর, নওগাঁ :: ট্রেতে করে পলিথিন মোড়ানো হাউজে বীজতলা তৈরি এবং পরম যত্নে মাত্র ২২ দিনেই রোপনের উপযোগি চারা প্রস্তুত। সেইসব পূর্ণাঙ্গ চারা গুলো এখন রাইস ট্রান্সপ্লান্টারে লাইন লোগো পদ্ধতি ব্যবহার করে রোপন করা হচ্ছে জমিতে। এতে পর্যাপ্ত আলো-বাতাসে বেড়ে ওঠে ধানের চারা। সুবিধা হয় পরির্চযার।

পোকা মাকড়ের প্রকোপ থেকে রক্ষা পেতে ব্যবহার করা হবে পাচিং পদ্ধতি,খরচ কমাতে ব্যবহার করা হবে আধুনিক সেচের এডাব্লুডি (পর্যায় ক্রমিক শুল্ক ও ভেজা) পদ্ধতি,সার ব্যবহার যথাযথ ও সীমিত করতে ব্যবহার করা হবে সুষম সার, অনায়াসে আগাছা নিধনে থাকবে উইডার মেশিন আর সর্বোপরি যুগপৎ ভাবে ধান কাটা, মাড়াই এবং প্যাকিংয়ের কাজে ব্যবহার করা হবে কম্বাইন্ড হারভেস্টার। বলা হয় সমলয় পদ্ধতিতে ধান চাষ।

এই পদ্ধতি অনুসরণ করে বোরোর চাষাবাদ কেরছেন আত্রাইয়ের রক্তদহ বিলের অন্তত ৫০ জন কৃষক। এ জন্য ১৫০ বিঘা জমিতে গড়ে তোলা হয়েছে সমলয় চাষাবাদ স্কীম। সরকার এ জন্য প্রায় ১৩ লাখ টাকার প্রণোদনা দিয়েছেন। এই প্রণোদনা কার্যক্রমের মাধ্যমে কৃষকের জমি এবং সেচের খরচ বাদে ধানের বীজতলা তৈরি থেকে শুরু করে সমুদয় ব্যয় বহন করবে সরকার।

এবার নওগাঁ জেলায় প্রথম বারের মতো কৃষি মন্ত্রনালয়ের পাইলট প্রোগ্রামের আওতায় আত্রাই উপজেলার রক্তদহবিলের ভোঁপাড়া ইউনিয়নের কাশিয়াবাড়ি ব্লকে ৫০ একর জমিতে সমলয় পদ্ধতিতে হাইব্রিড ধান চাষ করা হচ্ছে।

আত্রাই উপজেলা কৃষি পূর্ণবাসন বাস্তবায়ন কমিটির মাধ্যমে পাইলট এই স্খীমের কার্যক্রম মনিটরিং করছে কৃষি বিভাগ। এই কার্যক্রম সফল হলে নওগাঁ তথা রাজশাহী অঞ্চলের কৃষির সম্ভাবনায় যুক্ত হবে নতুন দিগন্ত।

কৃষি বিভাগ জানিয়েছেন, সমলয় চাষাবাদ পদ্ধতি হলো একটি নিদ্দিষ্ট মাঠে একই সময়ে একই জাতের ফসল চাষাবাদের মাধ্যমে ফসলের রোপন ও কর্তনের সময় এবং উৎপাদন খরচ কমানো। একই সঙ্গে কৃষকদের সংগঠিত করে নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে কৃষকদের মেলবন্ধন তৈরি করা। যা আগামী দিনের আধুনিক কৃষির এক অপরিহায্য উদ্যোগ।

বুধবার (১২ জানুয়ারী) দুপুর থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে রাইস ট্রান্সপ্লান্টার মেশিনে বোরো ধানের আগাম চারা রোপন কার্যক্রম কাশিয়াবাড়ি ধানের মাঠে শুরু হয়েছে।

এ সময় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইকতেখারুল ইসলাম।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নওগাঁ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. শামছুল ওয়াদুদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আত্রাই উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ কেএম কাওছার হোসেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নওগাঁ জেলাকৃষি প্রশিক্ষক মুন্জুরুল এলাহী, কৃষি প্রকৌশলী মাজহারুল ইসলাম, ভোঁপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের নবনিবাচিত চেয়ারম্যান মো. নাজিম উদ্দিন মন্ডল, কৃষক মো. শহিদুল ইসলাম তোতা প্রমূখ।

রাইস ট্রান্সপ্লান্টারে ধানের চারা রোপন কার্যক্রম প্রত্যক্ষ করতে উপস্থিত হয়েছিলেন বিপুল সংখ্যক সাধারন মানুষ ও প্রান্তিক কৃষকগন।

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন