পছন্দের নারীকেও ছেড়ে যান পুরুষরা, কিন্তু কেন?

তাজা খবর, লাইফস্টাইল ডেস্ক :: ভালোবাসার সম্পর্ক টিকে থাকে দুটি মানুষের বোঝাপোড়া ও বিশ্বাসের উপর। একটি সম্পর্কে জড়ানো যতটা সহজ, তা দীর্ঘদিন টিকিয়ে রাখা বেশি চ্যালেঞ্জের হতে পারে।

সম্পর্কে শুরুতে পছন্দের মানুষের সবকিছু ভালো লাগলেও সময় যেতেই একে অন্যের মানসিকতার পরিবর্তন দাম্পত্যে বিরাট প্রভাব ফেলতে পারে।

সেক্ষেত্রে দুজনেরই উচিত বিষয়গুলো নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করা, তবে অনেকেই তা করেন না। ফলে হুটহাট করেই ভেঙে যায় সম্পর্ক।

ঠিক তেমনই কিছু বিষয় আছে যে কারণে পুরুষরা তা ভালোবাসার ও পছন্দের নারীকে ছেড়ে যেতে পারেন সহজেই। জেনে নিন কোন কোন কারণে-

অনেক প্রেমিকা বা স্ত্রী পুরুষের প্রতি মায়ের মতো অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে চান। সারাদিন ওই পুরুষ কখন কী করবেন বা কার সঙ্গে মিশবেন সে বিষয়ের সীমা নির্ধারণ করে দেন।

আর এই বিষয় মোটেও পছন্দ করেন না পুরুষরা। এ কারণেও অনেক সময় পুরুষ তার প্রিয় নারীর সঙ্গ ত্যাগ করতে পারেন।

ভালোবাসার সম্পর্ক অনেক পবিত্র হয়। এই সম্পর্কের মধ্যে লোভ, বিদ্বেষ কিংবা ঘৃণা থাকলে তা সহজে টেকে না। যদি কোনো পুরুষ টের পান যে তার প্রেমিকা বা স্ত্রী সম্পর্ককে নিজ স্বার্থে ব্যবহার করছেন, সেেই সম্পর্ক থেকে পুরুষরা সরে পড়তে পারেন।

সম্পর্কের মধ্যে মানসিক ঘনিষ্ঠতার অভাব থাকলে তা অতি দ্রুত ভেঙে যেতে পারে। এটিও একটি বড় কারণ হতে পারে নারীকে ছেড়ে যাওয়ার।

একে অন্যের প্রতি সব দম্পতিরই উচিত সদয় ও উদার থাকা। তবে সম্পর্কের মধ্যে যদি সন্দেহ, অহেতুক অশান্তি কিংবা মানসিক চাপ বিরাজমান থাকে তাহলে ওই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে যেতে দুবার ভাবেন না পুরুষরা।

অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় পুরুষরা এমন কারও সঙ্গে থাকতে চা না যে বুদ্ধিবৃত্তিকভাবে উদ্দীপক হতে পারেন না।

পুরুষ একজন নারীকে যতই ভালোবাসুক না কেন আকর্ষণ হারালে তার কাছ থেকে সরে যেতে চান বেশিরভাগ পুরুষই।

সম্পর্কে থাকার কারণে যদি কোনো পুরুষ মনে করেন যে, তিনি নিজের জীবন সেভাবে উপভোগ করতে পারছেন না কিংবা অনেক কিছু ত্যাগ করছেন সেক্ষেত্রে ওই পুরুষ তার প্রিয় নারীকে ছেড়ে যেতে পারেন।

প্রিয় নারীর কাছ থেকে যদি কোনো পুরুষ প্রচণ্ড আঘাত পান তাহলেও তাকে তিনি যতই ভালোবাসুন না কেন ছেড়ে দিতে পারেন।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

 

সংবাদটি শেয়ার এবং লাইক করুন